কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা

কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা

Electric shock er fast aid/electric shock er prathomic chikitsha

কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা

বিভিন্ন ফানি ভিডিও তে বা অনেক ছবিতে দেখা যায়  বিদ্যুতায়িত ব্যক্তি কাঁপছে, এরকম অবস্থায় তাকে বাঁচানোর জন্য আরও একজন তার গায়ে হাত দেয় ফলে সেও বিদ্যুতায়িত হয়ে কাঁপতে থাকে এভাবে তাকে বাঁচানোর জন্য আরও অনেকে আসে এবং সবাই বিদ্যুতায়িত হয়ে কাঁপতে থাকে।এসব ভিডিও দেখে আমরা অনেক মজা পাই।

কিন্তু অনেক সময় আমাদের প্রিয়জন ঘরে অথবা বাইরে ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক তারে হাত দিয়ে কারেন্ট শক খায়। কেউ অসাবধানতাবসত কারেন্ট শক খেয়ে ফেলে। আবার অনেকে বিদ্যুতায়িত বা শক খাওয়া প্রিয়জনকে বাঁচাতে গিয়ে নিজেই বিদ্যুতায়িত হয় বা কারেন্ট শক খায়।

আপনার সামনে প্রিয়জন  কারেন্ট শক খেয়ে ছটফট করছে,  সে সময় আপনার মস্তিষ্ক কাজ করে না। কি করব কি করব ভাবতে ভাবতেই  আপন জনের মৃত্যু ঘটে যায়। আবার অতিরিক্ত দয়া দেখাতে গিয়ে নিজেই বিদ্যুতায়িত ব্যক্তিকে ধরে ফেলে এবং ওই ব্যক্তির সাথে নিজের মৃত্যু ঘটে।

 কিছু সাধারণ জ্ঞান মাথায় থাকলে বিদ্যুতায়িত ব্যক্তিকে মৃত্যুর হাত থেকে আমরা বাঁচাতে পারবো এবং নিজেও বেঁচে যেতে পারবো।তাহলে আসুন আর দেরি নয় জানা যাক কিভাবে বিদ্যুতায়িত ব্যক্তিকে বা কারেন্ট শক খাওয়া ব্যক্তিকে মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচাবেন?

কারেন্ট শক-ইলেকট্রিক শক-বৈদ্যুতিক শক কি?

কারেন্ট বা বিদ্যুতের ধর্ম হলো পরিবাহী পদার্থের মধ্যে দিয়ে ভ্রমণ করা।এই পথে কোন প্রতিবন্ধক থাকলেবিকল্প পরিবাহকের মধ্যে দিয়ে ভ্রমণ চালিয়ে যাওয়া। সকল প্রাণির দেহ বিদ্যুৎ পরিবাহী অর্থাৎ প্রাণিদেহের মধ্যে দিয়ে খুব সহজে বিদ্যুৎ যাওয়া আসা করতে পারে।

 কারেন্ট বা বিদ্যুৎ তার চলার পথ হতে ২য় কোন মাধ্যমে প্রবেশ করার পর যদি পুনরায় আগের মাধ্যমে ফিরে আসে তাহলে সমস্যা নাই, কিন্তু ২য় মাধ্যম হতে যদি ৩য় কোন মাধ্যমে পরিবাহিত হয় তবে সমস্যা হবে কারণ ১ম, ২য়, ৩য় মাধ্যমে চলাচল করার কারণে বিদ্যুৎ তার বর্তনি পূর্ণ করে ফেলে এবং বিপুল পরিমান বৈদ্যুতিক শক্তি প্রাণী দেহের মাধ্যমে পরিবাহিত হয়।

কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক-শক-এর-প্রাথমিক-চিকিৎসা/কারেন্ট-শক-খেলে-কি-করবেন?বিদ্যুৎ-স্পৃষ্ট-হলে-করণীয়/বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা

কি বুঝতে সমস্যা হলো? তাহলে সহজ করে উদাহরণ দেই।ধরুন – আপনি(১ম মাধ্যম) ডান হাতে শুধু পজেটিভ তার(২য় মাধ্যম)ধরলেন কিন্তু আপনার পা সরাসরি মাটি(৩য় মাধ্যম) বা অন্যকোন মাধ্যমে সংযুক্ত নেই, মানে আপনার পায়ে মোটা স্যান্ডেল আছে,এই স্যান্ডেল বিদ্যুৎ কুপরিবাহী তাই আপনার দেহের ভিতর দিয়ে কারেন্ট/বিদ্যুৎ ৩য় মাধ্যম বা মাটিতে যাবে না এতে আপনি করেন্ট শক খাবেন না।

 কারেন্ট শক-ইলেকট্রিক শক-বৈদ্যুতিক শক কি?

কিন্তু স্যান্ডেল না থাকলে বিদ্যুৎ ৩য় মাধ্যমে প্রবেশ করবে এবং বর্তনি পূর্ণ করবে ফলে আপনি শক খাবেন।প্রাণিদেহ খুব অল্প মাত্রায় বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে পারে (যেমন-একটি মানব দেহ মাত্র 10 থেকে 20মিলিভোল্ট কারেন্ট/বিদ্যুৎ উৎপন্ন করতে পারে)।

এর থেকে বেশি কারেন্ট/বিদ্যুৎ প্রাণিদেহে প্রবেশকরলেই দেহের পেশি বেশি সংবেদনশীল হয়ে পরে অর্থাৎ দেহের পেশি স্বাভাবিক অবস্থার তুলনায় বেশি সংকুচিত হয়।

পেশীর অতিসংবেদনশীলতার কারণে মানবদেহে ঝাকুনি হয় এই ঘটনাকে বলে কারেন্ট-বৈদ্যুতিক-ইলেকট্রিক শক।

কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা
কারেন্ট শক

কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা

নিচে বর্ণিত প্রত্যেকটি ধাপ ভালো ভাবে লক্ষ্য করুন এবং কারেন্ট শক খাওয়া ব্যক্তি কে বাঁচানোর জন্য এ ধাপগুলো পুঙ্খানুপুঙ্খ ভাবে অনুসরণ করুন।

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হলে করণীয়/ কারেন্ট শক খেলে কি করবেন?

১।আপনার সামনে কেউ কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক শক খেয়ে কাঁপছে  এ অবস্থায়  প্রথমে যা করবেন তা হল মেইন সুইচ বন্ধ করে দেওয়া। কোন চিন্তা ভাবনা ছাড়া প্রথমে মেইন সুইচ বন্ধ করুন।

২। কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক শক খাওয়া ব্যক্তিকে ভুল করেও প্রথমেই ধরতে যাবেন না প্রথমে তাকে ভালভাবে লক্ষ করুন সে  বিদ্যুৎ লাইনের সাথে যুক্ত আছে কিনা। যদি যুক্ত থাকে তাহলে শুকনা ও লম্বা কাঠ বা বাঁশ দিয়ে ধাক্কা দিন।বিদ্যুতের লাইন থেকে বিচ্ছিন্ন করুন।

কারেন্ট শক খেলে কি করবেন?
শক খাওয়া

কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা

  • লক্ষ্য করুন ব্যক্তিটি সচেতন আছে কিনা? যদি খুব আহত হয় বা সচেতন না থাকে তাহলে খোলামেলা বাতাস যুক্ত স্থানে নিয়ে আসুন।
  • অচেতন বা খুবই দুর্বল অথবা সামান্য জ্ঞান আছে এমন ব্যক্তিকে সমতল স্থানে মাথা একটু নিচু করে শুয়ে দিন। পা  সমান করে উঁচু করে রাখুন। অর্থাৎ বুকের থেকে মাথা নিচু এবং পা উঁচু থাকবে। এরকম করে শোয়ালে ব্যক্তিটির শ্বাসনালী খুলে যাবে এবং শ্বাস নিতে কষ্ট কম হবে।
  • এবার খুব ভালো করে ব্যক্তিটিকে লক্ষ্য করুন তার দেহে জীবিত থাকার লক্ষণ গুলো আছে কিনা।যেমন ধরুন বুক ঠিকমতো উঠানামা করছে কিনা?  হাতের পালস দেখুন রক্ত চাপ ঠিক আছে কিনা?বুকে কান লাগিয়ে দেখুন হৃদপিণ্ড ঠিকমতো শব্দ করছে কিনা?
  • শ্বাস-প্রশ্বাস এবং হৃদপিন্ডের শব্দ খুবই ক্ষীণ হলে প্রথমে ডাক্তার কে কল করুন অথবা ইমারজেন্সি কল করুন।
  • এই অবস্থায় যতদ্রুত সম্ভব রোগীকে সিপিআর(cardiopulmonary resuscitation)দিতে হবে। সিপিআর কি এটা নিয়ে আপনার মাথা না ঘামালেও চলবে, আপনি দেখুন সিপিআর কিভাবে দিতে হয়? এটি একটি সহজ প্রক্রিয়া।এটা করার জন্য আপনাকে ডাক্তার হতে হবে না। শুধু সাহস করে কাজে লেগে পড়ুন।এরপর নিচের ধাপ গুলো ফলো করুন।
সিপিআর প্রসেস

step-1.বামহাত রোগির বুকের মাঝ বরাবর সমতল ভাবে বিছিয়ে দিন।

step-2.ডান হাতের আঙ্গুলগুলো বাম হাতের আঙ্গুলগুলোর ফাঁকে ঢুকিয়ে দিন। step-3.ডান হাতের আঙ্গুলগুলো দিয়ে বাম হাত কে শক্ত করে খামচে ধরুন।

সিপিআর প্রসেস-2

হাতের উপর দেহের চাপ প্রয়োগ করে রোগির বুক  প্রায় দুই ইঞ্চি পরিমাণ দাবিয়ে দিন।এভাবে এক মিনিটে 100 বার পর্যন্ত করুন।

সিপিআর প্রসেস-3

এরপর রোগীর মুখ হা করান।

সিপিআর প্রসেস-4

রোগীর মুখে আপনার মুখ লাগান, যেন কোনো ফাঁকা না থাকে এভাবে মুখে লাগান  >আপনার ফুসফুসের সমস্ত শক্তি দিয়ে রোগীর মুখে দিন।

সিপিআর প্রসেস

রোগীর জ্ঞান না ফেরা পর্যন্ত চক্রাকারে কাজটি করতে থাকুন।

  • রোগী যদি কোন কিছু খেতে অক্ষম হয় বা গিলতে না পারে তাহলে দয়া করে তার মুখে কোন খাবার দিবেন না। কারণ এ সময় খাবার দিলে খাবার পাকস্থলীতে না গিয়ে ফুসফুসে ঢুকে পড়বে ফলে রোগী দম বন্ধ হয়ে মারা যাবে।
  • রোগী যদি খেতে পারে তাহলে গরম দুধ, চা, কফি পান করতে দিন।কোনভাবেই শক্ত খাবার খেতে দেবেন না
কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা
চা, কফি
  • রোগীর খুব তৃষ্ণা পেলে একটু পর পর পানি খেতে দিন। শরীরে কখনও পানি দেবেন না
  • খুব দুর্বল বোধ করলে দুই থেকে চার চামচ মধু গরম পানিতে মিশিয়ে খেতে দিন।
বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা
মধু
  •  ব্যক্তিটি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসলে তাকে কমপ্লিট রেস্টে রাখতে হবে। কোনভাবেই ছোটাছুটি বা ভারী কাজ করতে দেওয়া যাবে না।
বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা/বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা/বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হলে করণীয়
  • প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর রোগী সুস্থ বোধ করলেও তাকে অবশ্যই হাসপাতালে নিয়ে যান।

 কারেন্ট শক থেকে  বেঁচে যাওয়ার পর যে খাবার খেলে রোগী দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে।

ওমেগা থ্রি ফ্যাট যুক্ত খাবার কারেন্ট শক খেয়ে অসুস্থ  ব্যক্তিকে খাওয়ালে দ্রুত তার স্নায়তন্ত্র ঠিক হবে। ওমেগা থ্রি ফ্যাটি যুক্ত খাবার হলো বাদাম, শস্যদানা, মাছের তেল।

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হলে করণীয়
ওমেগা থ্রি ফ্যাট যুক্ত খাবার

ভিটামিন বি কমপ্লেক্স বিশিষ্ট খাবার রোগীকে খেতে দিন। প্রচুর ভিটামিন-সি খেতে দিন।

ভিটামিন-বি-১২
ভিটামিন বি কমপ্লেক্স বিশিষ্ট খাবার

কারেন্ট শক যাতে না খান তার জন্য কিছু সাবধানতা অবলম্বন করুন।

খোলা বৈদ্যুতিক তার ব্যবহার করবেন না। মাল্টিপ্লাগ গুলো পুরাতন হলে দ্রুত চেঞ্জ করে ফেলুন। সার্কিট ব্রেকার ব্যাবহার করুন।বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা!!!!

pacemaker santo

https://kotokisuojana.com

লেখাটি ভালো লাগলে আপনার প্রিয়জনের সাথে শেয়ার করুণ।জ্ঞান বিতরণে সাহায্য করুন। আপনি ভালো লিখতে পারলে এই ওয়েবসাইট এ লেখা পাঠান।লেখা মনোনীত হলে পুরস্কার পাবেন। আপনার মাথায় উদ্ভট কোন প্রশ্ন ঘুরছে কিন্তু উত্তর পাচ্ছেন না। তাহলে দেরি না করে এই পোস্টের নিচে কমেন্ট বক্সে প্রশ্ন টি লিখুন।উত্তর পাবেন নিশ্চিত।ধন্যবাদ

84 / 100

2 thoughts on “কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা”

Leave a Comment