হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর ১০টি অজানা তথ্য#

Table Of Contents
  1. স্যানিটাইজারের বিরুদ্ধে কি জীবাণু প্রতিরোধ তৈরি করে?
  2. স্যানিটাইজারে থাকা অ্যালকোহল কি কোন স্বাস্থ্য সমস্যা তৈরি করে?
  3. অ্যালকোহল ভিত্তিক স্যানিটাইজার ব্যবহারে ধর্মীয় নিষেধাজ্ঞা আছে কি?
  4. গ্লাভস ব্যবহারের চেয়ে স্যানিটাইজার ব্যবহার ভালো কি?
  5. একই স্যানিটাইজারের বোতল সবাই ব্যবহার করলে জীবাণু ছড়াবে কি?
  6. বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা(WHO) স্যানিটাইজার ব্যবহার অনুমোদন করে কি?
  7. কি পরিমাণ অ্যালকোহল-ভিত্তিক স্যানিটাইজার ব্যবহার করা উচিৎ?
  8. হ্যান্ড স্যানিটাইজার গিলে খেলে কি হবে?
  9. জেল স্যানিটাইজার কি লিকুইডের চেয়ে বেশি ভালো?
  10. হ্যান্ড স্যানিটাইজার কি দাহ্য পদার্থ?
  11. বারবার স্যানিটাইজার ব্যবহার কি ক্ষতিকর?
  12. এটি কতক্ষণ স্থায়ী হয়?
  13. তালুতে স্যানিটাইজার নিন
  14. তালু ঘষে ফেলুন
  15. আঙ্গুলের পেছনে ঘষুণ
  16. হাতের সিধা পিঠে ঘষুণ
  17. হাতের উল্টোপিঠ ঘষুণ
  18. বুড়ো আঙ্গুল ঘষুণ
  19. হাতের তালু ঘষুণ
  20. হাত শুকিয়ে ফেলুন

হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর ১০টি অজানা তথ্য

হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর ১০টি অজানা তথ্য
হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর ১০টি অজানা তথ্য

করোনাভাইরাস মহামারির এই সময়ে প্রতিরোধ ব্যবস্থার মধ্যে আমরা সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করি হ্যান্ড স্যানিটাইজার।অনেকে পকেটে সবসময় এক বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখে এবং এটা একটু পরপরই ব্যবহার করে।

কিন্তু আমরা জানিনা যে কখন কি পরিমাণ হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে। আসুন আজ জেনেনেই হ্যান্ড স্যানিটাইজার সম্পর্কে কিছু প্রশ্ন ও তার উত্তর।

আপনি আরো পড়তে পারেন.. বাড়িতে কিভাবে স্যানিটাইজার বানাবেন

স্যানিটাইজারের বিরুদ্ধে কি জীবাণু প্রতিরোধ তৈরি করে?

হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর ১০টি অজানা তথ্য

বিভিন্ন অ্যান্টিসেপটিক এবং অ্যান্টিবায়োটিকগুলির বিপরীতে জীবাণু প্রতিরোধ তৈরি করে কিন্তু অ্যালকোহল ভিত্তিক স্যানিটাইজারগুলির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলে বলে মনে হয় না।
অ্যালকোহল-ভিত্তিক স্যানিটাইজারগুলি প্রত্যেকের ব্যবহারের জন্য নিরাপদ।

স্যানিটাইজারে থাকা অ্যালকোহল কি কোন স্বাস্থ্য সমস্যা তৈরি করে?

হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর ১০টি অজানা তথ্য

স্যানিটাইজার ব্যবহার করলে এতে থাকা প্রধান উপাদান অ্যালকোহল ত্বকের সংস্পর্শে আসে এতে অল্প অ্যালকোহল ত্বকে শোষিত হয় কিন্তু অধিকাংশ অ্যালকোহল বাতাসে উড়ে যায়। ত্বকে অল্প অ্যালকোহল শোষিত হলে ত্বক হালকা শুষ্ক হয়ে যায়। তাই বেশিরভাগ স্যানিটাইজারে ত্বকের শুষ্কতা হ্রাস করার জন্য ইমোলিয়েন্ট থাকে। স্যানিটাইজার ব্যবহারের কারণে ত্বকের কোন সমস্যার ঘটনা এখনো দেখা যায় নি। এমনকি ত্বকে অ্যালার্জি হওয়ার ঘটনাও খুব একটা রেকর্ড করা হয়নি।

অ্যালকোহল ভিত্তিক স্যানিটাইজার ব্যবহারে ধর্মীয় নিষেধাজ্ঞা আছে কি?

হ্যান্ড স্যানিটাইজারের অ্যালকোহল হালাল

অসুস্থতা দূরীকরণ বা চিকিৎসার উপাদান হিসাবে ব্যবহৃত অ্যালকোহল কুরআনে হালাল বলে বর্ণনা করা হয়েছে। আপনি রোগ থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে নির্দিধায় অ্যালকোহল ভিত্তিক স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে পারেন।

গ্লাভস ব্যবহারের চেয়ে স্যানিটাইজার ব্যবহার ভালো কি?

হ্যান্ড স্যানিটাইজার

গ্লাভস ব্যবহার করলে এর উপর একসময় জীবাণু আটকে যায়। জীবাণুযুক্ত গ্লাভস টি দিয়ে আপনি যখন অন্যকোন পরিষ্কার বস্তু ধরবেন তখন তাতে জীবাণু সংক্রমিত হবে। কিন্তু কিছুক্ষণ পরপর স্যানিটাইজার ব্যবহার করলে এই সম্ভাবনা থাকে না।

একই স্যানিটাইজারের বোতল সবাই ব্যবহার করলে জীবাণু ছড়াবে কি?

হ্যান্ড স্যানিটাইজার

স্যানিটাইজারের বোতল ধরে হাত জিবাণুমুক্ত করার পর বোতলের মুখ বন্ধ করলে এটিও অটোমেটিক জীবাণুমুক্ত হয়ে যায় তাই নতুন কেউ এই বোতল স্পর্শ করলে সংক্রমিত হবে না। এভাবে জনসমাগম বেশি হয় এমন স্থানে হ্যান্ড স্যানিটাইজার এর মাধ্যমে জীবাণুর হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা(WHO) স্যানিটাইজার ব্যবহার অনুমোদন করে কি?

হ্যান্ড স্যানিটাইজার

হাত পরিষ্কার রাখতে রোগী, স্বাস্থ্যকর্মী, ডাক্তার এবং অন্যান্য সেবাদানকারী মানুষদের স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে WHO উৎসাহিত করে। এটি WHO এর একটি অত্যাবশ্যকীয় ঔষধের তালিকাভুক্ত ঔষধ।

কি পরিমাণ অ্যালকোহল-ভিত্তিক স্যানিটাইজার ব্যবহার করা উচিৎ?

হ্যান্ড স্যানিটাইজার

আপনার হাতের উভয় পৃষ্ঠকে ভালোকরে ভেজানোর জন্য পর্যাপ্ত স্যানিটাইজার হাতে ঢালুন এরপর দুই হাত ভালোকরে ঘষুণ। পুরো পদ্ধতিটি অন্তত 20-30 সেকেন্ড স্থায়ী হওয়া উচিত।

হ্যান্ড স্যানিটাইজার গিলে খেলে কি হবে?

কেউ ভুলকরে স্যানিটাইজার গিলে খেলে এটি পেটে গিয়ে হালকা বিষক্রিয়া সৃষ্টি করে। দ্রুত ডাক্তার দেখানো উচিৎ। তবে খুব বেশি চিন্তিত হওয়ার কারণ নেই কারণ এতে আপনার মৃত্যু হবে না।

জেল স্যানিটাইজার কি লিকুইডের চেয়ে বেশি ভালো?

হ্যান্ড স্যানিটাইজার গিলে খেলে কি হবে?

জেল স্যানিটাইজারে আঠালো জেল থাকে এটি অ্যালকোহলকে বেশিক্ষণ ধরে রাখে ফলে আপনি অধিক সময় সুরক্ষিত থাকবেন। কিন্তু লিকুইড স্যানিটাইজার খুব তারাতারি বাতাসে মিলিয়ে যায়।

হ্যান্ড স্যানিটাইজার কি দাহ্য পদার্থ?

হ্যান্ড স্যানিটাইজার দাহ্য পদার্থ

হ্যাঁ, অ্যালকোহল যেহেতু দাহ্য পদার্থ তাই এর থেকে তৈরি স্যানিটাইজার ও দাহ্য। এটি ব্যবহারের পর আগুনের কাছে যাবেননা। বোতলটিও আগুন থেকে দূরে রাখুন।

বারবার স্যানিটাইজার ব্যবহার কি ক্ষতিকর?

হ্যান্ড স্যানিটাইজার দাহ্য পদার্থ

হ্যাঁ, ১০ মিনিটের মধ্যে ৩ বার স্যানিটাইজার ব্যবহার ত্বকের ক্ষতির কারণ হতে পারে। আপনি ১৫ থেকে ২০ মিনিট পরপর হাত স্যানিটাইজ করতে পারেন।

এটি কতক্ষণ স্থায়ী হয়?

হাতে জীবাণু থাকলে তাকে তাৎক্ষণিকভাবে মেরে ফেলে এই স্যানিটাইজার কিন্তু অ্যালকোহল উদ্বায়ী হওয়ায় এটি ত্বকে বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়না। কয়েক মিনিটের মধ্যেই এর কার্যকরীতা শেষ হয়ে যায়।

স্যানিটাইজার ব্যবহারেরর সঠিক নিয়ম কি?

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার সঠিক নিয়ম

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার
সঠিক নিয়ম
সময়- ২০-৩০ সেকেন্ড

Total Time:

তালুতে স্যানিটাইজার নিন

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার সঠিক নিয়ম

হ্যান্ড স্যানিটাইজারের বোতল থেকে স্যানিটাইজার ঢেলে হাতের পুরো তালুতে নিতে হবে। জেল স্যানিটাইজার এর ক্ষেত্রেও একই কাজ করুন।

তালু ঘষে ফেলুন

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার সঠিক নিয়ম

ডান ও বাম হাতের তালু একত্রিত করে সবদিকে ঘুড়িয়ে ঘুড়িয়ে ঘষুণ।

আঙ্গুলের পেছনে ঘষুণ

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার সঠিক নিয়ম

উভয় হাতের তালুতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার নিয়ে বিপরিত হাতের আঙ্গুলের উল্টোপিঠ ঘষুণ।

হাতের সিধা পিঠে ঘষুণ

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার সঠিক নিয়ম

উভয় হাতের সিধা দিক একসাথে করে
আঙ্গুলের খাজে আঙ্গুল ঢুকিয়ে সামনে পেছনে টেনেটেনে ঘষুণ।

হাতের উল্টোপিঠ ঘষুণ

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার সঠিক নিয়ম

ডান হাত দিয়ে বাম হাতের উল্টোপিঠে আঙ্গুলের খাজে আঙ্গুল ঢুকিয়ে পিছনের দিক ঘষুন। বাম হাত দিয়ে ডান হাতেও একই কাজ করুন।

বুড়ো আঙ্গুল ঘষুণ

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার সঠিক নিয়ম

প্রথমে ডান হাতের থাবার মধ্যে বাম হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে ঘষুন। এরপর বাম হাত দিয়ে ডান হাতের বুড়ো আঙ্গুল ঘষুণ।

হাতের তালু ঘষুণ

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার সঠিক নিয়ম

ডান হাতের আঙ্গুল ভাজ করে বাম হাতের তালুতে চক্রাকারে ঘষুন, সামনে-পিছনে বারবার ঘষে ফেলুন। এবার বাম হাত দিয়ে ডান হাতও পূর্বের নিয়মে ঘষুন।

হাত শুকিয়ে ফেলুন

হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করার সঠিক নিয়ম

হাত ঘষার পর না শুকানো পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে আপনার হাত পরিষ্কার হয়ে গেছে। এখন আপনি জীবাণুমুক্ত।

10 amazing fact about hand sanitizer

10 amazing fact about hand sanitizer in bengali. interesting fact about hand sanitizer in bengali

How to use hand sanitizer properly in bangla

guideline about using hand sanitizer in bangla. how to use hand sanitizer in bangla

তথ্য সূত্রঃ WHO বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

Please click on Just one Add to Help Us

মহাশয়, জ্ঞান বিতরণের মত মহৎ কাজে অংশ নিন।ওয়েবসাইট টি পরিচালনার খরচ হিসেবে আপনি কিছু অনুদান দিতে পারেন, স্পন্সর করতে পারেন, এড দিতে পারেন, নিজে না পারলে চ্যারিটি ফান্ডের বা দাতাদের জানাতে পারেন। অনুদান পাঠাতে পারেন এই নম্বরে ০১৭২৩১৬৫৪০৪ বিকাশ,নগদ,রকেট।

এই ওয়েবসাইট আমার নিজের খরচায় চালাই। এড থেকে ডোমেইন খরচই উঠেনা। আমি একা প্রচুর সময় দেই। শিক্ষক হিসেবে আমার জ্ঞান দানের ইচ্ছা থেকেই এই প্রচেষ্টা। আপনি লিখতে পারেন এই ব্লগে। এগিয়ে নিন বাংলায় ভালো কিছু শেখার প্রচেষ্টা।

DMCA.com Protection Status