কোকিলের ডাক নকল করলে সে আরো জোরে ডাকে কেন?

কোকিলের ডাক নকল করলে সে আরো জোরে ডাকে কেন?

বসন্ত কালে কোকিলের কুহুরব মানব মনে বসন্তের আগমন ঘোষণা করে। অনেকে এই কুহু কুহু ডাক শোনার জন্য বনবাদাড়ে ঘুরে বেরায়। কিন্তু আপনি জানেন কি কোকিল কেন সুরেলা কণ্ঠে ডাকতে থাকে?কোকিলের ডাক নকল করলে সে আরো জোরে ডাকে কেন? ডাক তো অনেক শুনেছেন কিন্তু ডাকার কারণ তো চিন্তা করেন নি।তাহলে আজ জানাযাক কোকিলের ডাক সম্পর্কে বিস্তারিত….

আপনি আরো পড়তে পারেন … কোকিল বাসা বানায় না কেন? কোকিল কাকের বাসায় ডিম পারে কেন?

বসন্তকালে কোকিল ডাকে কেন?

এদের প্রজনন ঋতু হয়ে থাকে মার্চ মাস থেকে সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত। বসন্তকালে এদের প্রজননের সময় শুরু হয়। এরা যেহেতু বাসা বানিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মত একসাথে থাকেনা সেহেতু প্রজননের জন্য সঙ্গী খুঁজতে হয়। সঙ্গী তো আর কাছে থাকেনা যে টুং করে শব্দ করলেই আসবে। এদের পুরুষ সদস্যরা স্ত্রী সদস্যকে আকৃষ্ট করার জন্য সুরেলা কণ্ঠে গান গায়। যে পুরুষের গান সবচেয়ে ভালো হয় স্ত্রী সদস্য তার সাথে জোড়া বাধে এবং প্রজননে অংশ নেয়।

পুরুষ ও স্ত্রী কোকিলের ছবি

পুরুষের কন্ঠ বেশ সুরেলা তাই আমাদের কানে মধু বর্ষণ করে, মনকে আনন্দিত করে। তাই কবিতার ভাষায় এদের বসন্তদূত বলে। পুরুষের ডাক সুমিষ্ট হলেও স্ত্রীর ডাক কিন্তু মোটেই আরামদায়ক নয় এটা আপনার কানে বিষ বর্ষণ করবে। স্ত্রীর ডাক কিছুটা ক্য…ক্যা…..ক্যাক…..ক্যাক শব্দের মত।

কোকিলের ডাক নকল করলে সে আরো জোরে ডাকে কেন?

সঙ্গী খোঁজার পাশাপাশি কোকিল এই কুহু ডাক কাককে উতক্ত করার জন্য প্রয়োগ করে। স্ত্রী কোকিল কাকের বাসায় খোঁজ নিয়ে দেখে কাক ডিম পেড়েছে কিনা? যদি দেখে কাক ডিম পেড়েছে তাহলে সে কাকের বাসায় ডিম পাড়ার প্রস্তুতি নিতে থাকে। প্রস্তুতির অংশ হিসেবে পুরুষ সদস্য সাহায্য করতে এগিয়ে আসে। পুরুষটি কাকের বাসার কাছে এসে ডাকতে থাকে এবং আক্রমণের অঙ্গভঙ্গি করে এতে কাক বাসা ও ডিম ছেড়ে পুরুষ কোকিলকে ধাওয়া করতে থাকে।

কোকিলের ডাক নকল করলে সে আরো জোরো ডাকে কেন

এই সুযোগে স্ত্রীটি কাকের বাসা থেকে ডিম ফেলে দিয়ে সমান সংখ্যক নিজের ডিম পারে। মানুষ যখন পুরুষটির ডাক অনুকরণ করে তখন কাক মানুষের শব্দের উৎসের দিকে ধাওয়া করে সেদিকে চলে যেতে পারে। এমনকি নিজের বাসায় ফিরে আসতে পারে। কারণ কাক বুদ্ধিমান পাখি এরা কিছুক্ষনের মধ্যে বুঝে যাবে এটা মানুষ করছে আর বাসায় ফিরে যাবে। আর ফিরে আসলে তো মহাবিপদ! কারণ এই অল্প সময়ের মধ্যে স্ত্রীটির ডিম পাড়া শেষ হবে না আর কাকের কাছে ধরা পরে যাবে। ধরা পরলে কিন্তু রক্ষা নেই স্ত্রীটির জীবন বিপন্ন হতে পারে, সাথে তাদের ভবিষৎ প্রজন্মেরও।

তাই পুরুষটি আরো জোরে চেঁচায় যাতে কাক মানুষের শব্দ শোনার আগে কোকিলের শব্দ শোনে আর তাকে তাড়া করে। আপনি বিষয়টা পরীক্ষা করার জন্য কাকের বাসার কাছে গিয়ে কয়েকবার কোকিলের ডাক অনুকরণ করুন। তারপর দেখুন কি হয়? হেলমেট না পরে এরম কিছু চেষ্টা করবেন না। তাহলে মাথার চামড়া ও চুলের দফারফা হয়ে যাবে।

কাকের আক্রমণ
কাকের আক্রমণ

টাগঃ কোকিলের ডাক নকল করলে কোকিলের ডাক নকল করলে কোকিলের ডাক নকল করলে কোকিলের ডাক নকল করলে

Please Click on Just one Add to help us

মহাশয়, জ্ঞান বিতরণের মত মহৎ কাজে অংশ নিন।ওয়েবসাইট টি পরিচালনার খরচ হিসেবে আপনি কিছু অনুদান দিতে পারেন, স্পন্সর করতে পারেন, এড দিতে পারেন, নিজে না পারলে চ্যারিটি ফান্ডের বা দাতাদের জানাতে পারেন। অনুদান পাঠাতে পারেন এই নম্বরে ০১৭২৩১৬৫৪০৪ বিকাশ,নগদ,রকেট।

এই ওয়েবসাইট আমার নিজের খরচায় চালাই। এড থেকে ডোমেইন খরচই উঠেনা। আমি একা প্রচুর সময় দেই। শিক্ষক হিসেবে আমার জ্ঞান দানের ইচ্ছা থেকেই এই প্রচেষ্টা। আপনি লিখতে পারেন এই ব্লগে। এগিয়ে নিন বাংলায় ভালো কিছু শেখার প্রচেষ্টা।

DMCA.com Protection Status