কোকিল বাসা বানায় না কেন?

কোকিল বাসা বানায় না কেন?

ঠকবাজ মানুষদের ঠকবাজীর জুতসই উপমা খুঁজে না পেলে কোকিলের উপমা দেয়া হয়। আবার পরের মাথায় কাঠাল ভেঙ্গে খাওয়া বাগধারাটির একটি বাস্তব উদাহরণ কোকিল। কোকিল নিজে বাসা বানায় না। বাচ্চা লালন পালনের ঝামেলাও একদম পছন্দ করে না। আহ্ কি সুখের জীবন! বিয়ে করো বাচ্চা নাও কিন্তু বাচ্চা লালন পালন করার দরকার নেই। রেডিমেড বাবা-মা হতে চাইলে আপনার যে কৌশল শেখা উচিৎ তা কোকিলের কাছ থেকে শিখতে পারেন।

কোকিল সন্তান উৎপদন করে বংশবৃদ্ধি করে কিন্তু বাসা বানায় না,বিষয়টি স্কুল পড়ুয়া শিশু থেকে শুরু করে বুড়ো মানুষ সবাই জানে । কিন্তু কোকিল বাসা বানায় না কেন? এই প্রশ্নের উত্তর কিন্তু সবাই জানে না। আজ এই প্রশ্নের উত্তর আপনি জেনে যাবেন। তাহলে পড়া শুরু করুন….. কোকিল বাসা বানায় না কেন?

আপনি আরো পড়তে পারেন… কোকিল কাকের বাসায় ডিম পারে কেন?

প্রথম ধাপে জানতে হবে……

ব্রুড প্যারাসাইট পাখি কি?

যে পাখিরা সাধারণত নিজেরা বাসা না বানায় অন্য পাখির বাসায় নিজের ডিম পাড়ে এবং বাচ্চা ফোটানো ও তার লালন-পালনের ভার সেই পোষক পাখির ওপর ছেড়ে দেয় তাদের ব্রুড প্যারাসাইট পাখি বলে।এই প্রক্রিয়াকে brood parasitism বলে।বাচ্চা লালন পালন না করার ফলে তাদের হাতে যে অফুরন্ত সময় থাকে সেই সময়টা তারা অন্য পাখির বাসা অনুসন্ধান করে ও আরও বাচ্চা জন্ম দিয়ে বেড়ায়।

কোকিল হলো একটি ব্রুড প্যাসাইট। এদের ডিমের আকৃতি ও রঙ কাকের ডিমের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ হয়। তবে অন্যান্য পাখির ডিমের সাথেও মিল থাকতে পারে। যেমন বাজ কোকিলের ডিমের রঙ ও আকৃতি হয় হুবহু সাতভাই ছাতারে (Jungle Babbler) পাখিদের ডিমের মত।যাইহোক ডিম ফুটে বাচ্চা বের হলে কাক বা অন্য পালক পাখি কোকিলের বাচ্চাকে লালন পালন করতে শুরু করে।

ব্রুড-প্যারাসাইটিজম
ব্রুড-প্যারাসাইটিজম

ছানাও বেড়ে উঠতে থাকে। এই ছানাগুলোর বৃদ্ধি খুব দ্রুত হয় ফলে বাসায় থাকা অন্য ছানার থেকে এরা বেশ শক্তিশালী হয়। বেশি খাদ্য পাওয়ার লোভে এটি নিজের শক্তিবলে বাসার অন্য ছানাদের ফেলে দেয়। প্রথম দিকে ছানাদের গায়ে কোন পালক থাকে না তাই নকল বাবা-মা এদের চিনতে পারে না।

কিন্তু পালক গজানোর পর যখন চিনতে পারে তখন এদের তাড়িয়ে দেয়।কোকিলের ছানা কিন্তু শুধু অপকারই করেনা কিছু উপকারও করে। কাকের বাসায় বাজ পাখি, সাপ হানা দিলে এই ছানারা একধরণের বাজে গন্ধ সৃষ্টি করে এই গন্ধ সহ্য করতে না পেরে শিকারি পলায়ন করে।

এবার জানবো…………..

কোকিল বাসা বানায়না কেন?

ডিম পাড়ার পরে পাখিদের মস্তিষ্কের পিটুইটারি গ্রন্থি থেকে একধরণের হরমোন ক্ষরিত হয়। এর নাম প্রোল্যাকটিন হরমোন। এই হরমোনের প্রভাবে পাখিদের মধ্যে মাতৃত্বের অনুভূতি সৃষ্টি হয়। একারণে এরা বাচ্চা লালন পালন করে। এই কাজে বাসা বানানো টা খুব জরুরি। মানে বাচ্চা বড় করতে হলে তো ঘর লাগবে, তাই পাখিরা বাসা বানায় এবং নিজের বাসায় ডিম পাড়ে।

কোকিল বাসা বানায়না কেন?

কোকিলের দেহে প্রোল্যাকটিন হরমোনের ঘাটতি আছে তাই এদের মস্তিষ্কে মাতৃত্বের অনুভূতি কম সৃষ্টি হয়।একারণে এরা নিজের সন্তান লালন পালন করেনা এবং বাসাও বানায়না।সব কোকিল কিন্তু এক নয়, অধিকাংশ সদস্য পরের বাসায় ডিম পাড়লেও অল্প কিছু প্রজাতি বাসা বানায় এবং ডিম পাড়ে। নিজের সন্তানকে নিজেই মানুষ করে।বাকিদের সন্তান বেড়ে উঠে অন্য পাখির বাসায়। মানে পালক বাবা-মার তত্বাবধানে বড় হতে থাকে।

এই ধাপে জানবো …..

কোকিল সম্পর্কে অজানা তথ্য

অজানা তথ্য

কোকিল

গোত্র: Cuculidae গোত্রের পাখি।
বৈজ্ঞানিক নাম: Eudynamys scolopacea
প্রজাতি সংখ্যা:পৃথিবীব্যাপী কোকিলের প্রায় ১৩০টি প্রজাতির খোঁজ পাওয়া গেছে।
দৈহিক গঠন: সামান্য বাঁকানো ঠোঁট, লম্বা লেজ এবং দীর্ঘ চোখা ডানা রয়েছে।
বাসস্থান:অধিকাংশ কোকিল গাছে থাকে।কিছু ভূমিতে চড়ে বেরায়।
বিস্তৃতি: মরু ও মেরু অঞ্চল বাদে প্রায় সমগ্র পৃথিবীজুড়ে বিস্তৃত; কিছু প্রজাতি পরিযায়ী।
খাদ্য: পোকামাকড়, শুককীট প্রধান খাদ্য। এছাড়া ফলমূলও খায়।

পুরুষ ও স্ত্রী কোকিলের ছবি

পুরুষ ও স্ত্রী কোকিলের ছবি
পুরুষ ও স্ত্রী কোকিলের ছবি

কোকিল বাসা বাঁধে না কেন?

কোকিলের দেহে প্রোল্যাকটিন হরমোনের ঘাটতি আছে তাই এদের মস্তিষ্কে মাতৃত্বের অনুভূতি কম সৃষ্টি হয়।

কোকিল পাখি কি খায়?

পোকামাকড়, শুককীট প্রধান খাদ্য। এছাড়া ফলমূলও খায়।

কোকিলের রঙ কেমন?

পুরুষ কোকিলের শরীরে চকচকে কালো রঙের মধ্যে নীল ও সবুজের আভা থাকে। আর স্ত্রী পাখির পিঠে বাদামির ওপর সাদা ও পীতাভ চিতি রয়েছে।

পাপিয়া পাখি কি?

Clamator jacobinus প্রজাতির কোকিল কে পাপিয়া বলে। এর ইংরেজি নাম Pied-crested Cuckoo

বসন্তদূত কোন পাখির নাম?

কোকিল পাখির নাম বসন্তদূত

Why do cuckoos not build their own nests in bangla?

The terrible truth about the cuckoo in Bangla, kokil basha banay na keno? kokil er basha, Brood Parasitisme in bangla,

Tag: কোকিল বাসা বানায় না কোকিল বাসা বানায় না কোকিল বাসা বানায় না কোকিল বাসা বানায় না কোকিল বাসা বানায় না

Please Click on Just one Add to help us

মহাশয়, জ্ঞান বিতরণের মত মহৎ কাজে অংশ নিন।ওয়েবসাইট টি পরিচালনার খরচ হিসেবে আপনি কিছু অনুদান দিতে পারেন, স্পন্সর করতে পারেন, এড দিতে পারেন, নিজে না পারলে চ্যারিটি ফান্ডের বা দাতাদের জানাতে পারেন। অনুদান পাঠাতে পারেন এই নম্বরে ০১৭২৩১৬৫৪০৪ বিকাশ,নগদ,রকেট।

এই ওয়েবসাইট আমার নিজের খরচায় চালাই। এড থেকে ডোমেইন খরচই উঠেনা। আমি একা প্রচুর সময় দেই। শিক্ষক হিসেবে আমার জ্ঞান দানের ইচ্ছা থেকেই এই প্রচেষ্টা। আপনি লিখতে পারেন এই ব্লগে। এগিয়ে নিন বাংলায় ভালো কিছু শেখার প্রচেষ্টা।