টেস্টটিউব বেবি হারাম না হালাল?

সূচীপত্র
  1. টেস্টটিউব বেবি হারাম না হালাল ইসলাম কি বলে?
  2. টেস্টটিউব বেবি কি ইসলামে হালাল?
  3. টেস্টটিউব বেবি কি হারাম?

টেস্টটিউব বেবি হারাম না হালাল ইসলাম কি বলে?

IVF আইভিএফ হারাম না হালাল ইসলাম কি বলে?

টেস্টটিউব বেবি বিধর্মীদের আবিষ্কার। অমুসলিমদের ধর্মে এটা বৈধ না অবৈধ তা নিয়ে তাদের মাথাব্যথা নেই কারণ তারা ধর্মের আদেশ পালনে বেশ উদাসীন। কিন্তু একজন ধর্মপ্রাণ মুসলিম ধর্ম রক্ষার জন্য জীবন বিসর্জন দিতেও প্রস্তুত থাকে। তাই কোন কাজ করার আগে শতবার ভাবে কাজটি হারাম না হালাল?

আধুনিক বিজ্ঞানের আশ্চর্যজনক আবিষ্কার টেস্টটিউব বেবির মাধ্যমে নিঃসন্তান ধর্মপ্রাণ মুসলিম দম্পতি বাবা-মা হতে চাইলে তা হালাল হবে কি না তা অনেকে জানেনা। আমার ধর্ম জ্ঞান খুব সীমিত তাই বিভিন্ন উৎস থেকে কুরআন, হাদিস ও ফিকাহ্ শাস্ত্রের তথ্য সংগ্রহ করে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করছি আপনি আমন্ত্রিত……

টেস্ট টিউব বেবি হারাম না হালাল?
টেস্ট টিউব বেবি হারাম না হালাল?

আপনি আরো পড়তে পারেন….. তিন স্ত্রী পুরুষ মিলে এক সন্তান জন্ম দেয়!!! …..সারোগেসি কি? …. টেস্ট টিউব বেবি কি?টেস্টটিউব বেবি কিভাবে হয়?

টেস্টটিউব বেবি কি ইসলামে হালাল?

IVF আইভিএফ কি ইসলামে হালাল?

ইসলাম ধর্মের বিধান অনুসারে বিয়ের পর স্বামী-স্ত্রীর যৌনমিলনে সৃষ্ট শিশু হালাল। যৌন মিলনের মাধ্যমে শুক্রাণু ও ডিম্বাণু মিলিত হয়ে সন্তান উৎপাদন হয়। তাই বলা যায় বংশ রক্ষাকরার জন্যই যৌনমিলনে অংশ নেয় বিবাহিত নারী ও পুরুষ।

কিন্তু দম্পতির কোন একজন বা উভয়ে স্বাভাবিক উপায়ে সন্তান জন্মদানে অক্ষম হলে বিকল্প পথ বেছে নেয়। এই বিকল্প পথের মহান উদ্দেশ্যও একই বংশবৃদ্ধি করা। তাই বৈধ উপায়ে বিকল্প পদ্ধতি প্রয়োগ করে সন্তান জন্মদান করা বৈধ।

টেস্টটিউব বেবি ইসলামে হালাল

টেস্টটিউব বেবি ইসলামে হালাল তবে কিছু শর্ত মানতে হবে।

হালাল টেস্টটিউব বেবি
হালাল টেস্টটিউব বেবি

শর্ত ১. একই দম্পতির জনন কোষ

শুক্রাণু ও ডিম্বানু একই স্বামী এবং স্ত্রীর হতে হবে। যে দম্পতি টেস্টটিউব বেবি নেবে তাদের শুক্রাশয় ও ডিম্বাশয় থেকে শুক্রাণু ও ডিম্বাণু সংগ্রহ করতে হবে।বিশ্বস্ত ডাক্তারের তত্ত্বাবধায়নে এই কাজ নিশ্চিত করা উচিৎ। ভিন্ন কোন পুরুষ বা মহিলার জনন কোষ সংগ্রহ করা যাবে না। এতে সন্তানের পিতৃত্ব ও মাতৃত্ব পরিবর্তন হতে পারে।

রাসুল সা: বলেন,
সন্তান তারই যার সাথে (বৈবাহিক সম্পর্কের ভিত্তিতে) ‘ফিরাশ’ বা শয্যাযাপন হয়। আর ব্যভিচারকারীর জন্য রয়েছে পাথর’।

[বুখারী,খ-৩,পৃ-৭০ হা:২০৫৩; মুসলিম,খ-৪,পৃ-১৭১,হা:৩৬৮৬]

শর্ত ২. একই স্ত্রীর দেহে ভ্রূণ প্রতিস্থাপন

নিষিক্ত ডিম্বাণু বা টেস্টটিউবের ভেতর তৈরি হওয়া ভ্রূণ নিজের স্ত্রীর জরায়ুতে স্থাপন করতে হবে। কোন দম্পতির শুক্রাণু ও ডিম্বাণু সংগ্রহ করে টিউবে কৃত্রিমভাবে নিষিক্ত করার পর নিষিক্ত ডিম্বাণু অন্য আরেকজন স্ত্রীলোকের জরায়ুতে প্রতিস্থাপন করা যাবে না। এই ধরণের কাজ যিনার মত হারাম।

শর্ত ৩. স্বামীর জীবদ্দশায় এই কাজ করতে হবে

স্বামী বেঁচে থাকা অবস্থায় এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে, মৃত্যুর পরে নয়। স্বামীর শুক্রাণু কৃত্রিম উপায়ে সংরক্ষণ করা যায় অনেক বছর পর্যন্ত। যদি স্বামীর মৃত্যুর পর তার সংরক্ষণ করা শুক্রাণু দিয়ে মৃত ব্যক্তির স্ত্রী গর্ভধারণ করেন তবে এটা বৈধ হবে না।
কারণ মৃত্যুর পর কোন পুরুষের সন্তান জন্মদান করা বৈধ নয়। ঐ সন্তানের পিতৃপরিচয় কী হবে? কিন্তু কোন পুরুষ স্ত্রীর গর্ভে সন্তান রেখে মারা গেলে তা বৈধ কারণ ঐ পুরুষ বেঁচে থাকা অবস্থায় নিজ স্ত্রীর সাথে সঙ্গমের মাধ্যমে সন্তান উৎপাদন করেছেন।

টেস্টটিউব বেবি কি হারাম?

স্বাভাবিক দৃষ্টিতে সবকিছু ঠিক থাকলে টেস্টটিউব বেবি হারাম হওয়ার কোন কারণ নেই। কিন্তু কোন অস্বাভাবিক বা অনৈতিক উপায়ে টেস্টটিউব বেবির জন্ম হয় তবে তা হারাম হবে।

IVF আইভিএফ কি হারাম?

নিম্নোক্ত কারণে টেস্টটিউব বেবি বা IVF আইভিএফ হারাম হয়ে যায়।

পরস্ত্রীর ডিম্বাণু ব্যবহার

হারাম টেস্টটিউব বেবি
হারাম টেস্টটিউব বেবি

নিজের স্ত্রী বাদে অন্য মহিলার ডিম্বাণু ব্যবহার করে তৈরি করা টেস্টটিউব শিশু হারাম। কোন পুরুষ যদি অন্য পুরুষের বিবাহিত স্ত্রীর বা অন্য কোন অবিবাহিত নারীর সাথে সহবাস করে তবে তা হারাম বলে গণ্য হবে। তাই নিজের স্ত্রী ব্যতীত অন্য নারীর ডিম্বাণুর সাথে নিজের শুক্রাণুর মিলন ঘটিয়ে সন্তান উৎপাদন অবৈধ। এটার আরেকটি সমস্যা হলো দ্বৈত মাতৃত্ব সৃষ্টি হওয়া।

যে নারীর ডিম্বাণু ব্যবহার করে সন্তান উৎপাদন করা হবে সে হবে সন্তানের জিনেটিক মা আর যে সন্তান গর্ভে ধারণ করবে সে হবে বায়োলজিক্যাল মা। সন্তানের বাবা কিন্তু একটাই। তাহলে মানে দারায় এক সন্তান কিন্তু বাবা মা তিনজন। এভাবে সন্তান জন্মদান ইসলামে গর্হিত কাজ এবং চরমভাবে নিষিদ্ধ। কারো স্ত্রীর ডিম্বাণু উৎপাদন না হলে সে স্বাভাবিক নিয়মে বাবা হতে পারবেন না। বাবা হতে চাইলে তাকে নতুন করে বিয়ে করতে হবে।

রাসূল সাঃ ইরশাদ করেন-

عَنْ رُوَيْفِعِ بْنِ ثَابِتٍ الأَنْصَارِىِّ قَالَ قَامَ فِينَا خَطِيبًا قَالَ أَمَا إِنِّى لاَ أَقُولُ لَكُمْ إِلاَّ مَا سَمِعْتُ رَسُولَ اللَّهِ -صلى الله عليه وسلم- يَقُولُ يَوْمَ حُنَيْنٍ قَالَ « لاَ يَحِلُّ لاِمْرِئٍ يُؤْمِنُ بِاللَّهِ وَالْيَوْمِ الآخِرِ أَنْ يَسْقِىَ مَاءَهُ زَرْعَ غَيْرِهِ (سنن ابى داود-كتاب النكاح، باب فِى وَطْءِ السَّبَايَ، رقم الحديث-2160)

অনুবাদ-হযরত রুয়াইফি বিন সাবিত আনসারী রাঃ একদা খুতবাদানকালে বলেন-আমি কি তোমাদের বলব না যা আমি রাসূল সাঃ কে বলতে শুনেছি হুনাইন যুদ্ধের দিন? তিনি বলেছেন-আল্লাহ ও আখেরাত বিশ্বাসী কোন ব্যক্তির জন্য বৈধ নয় যে, সে তার পানি [বীর্য} দিয়ে অন্য কারো জমি [জরায়ু] প্রবাহিত করবে।

{সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং-২১৬০, মুসনাদে আহমাদ, হাদীস নং-১৬৯৯০, মুসন্নাফে ইবনে আবী শাইবা, হাদীস নং-১৭৭৪৯, আল মু’জামুল কাবীর, হাদীস নং-৪৪৮২}

পরস্ত্রীর জরায়ুতে ভ্রূণ প্রতিস্থাপন

নিজের স্ত্রী বাদে অন্য মহিলার জরায়ুতে ভ্রূণ প্রতিস্থাপন করে টেস্টটিউব বেবি জন্মদান করা হারাম। কোন দম্পতির শুক্রাণু ও ডিম্বাণু টেস্টটিউবে নিষিক্ত করে কৃত্রিমভাবে ভ্রূণ তৈরি করার পর তা অপর কোন নারীর জরায়ুতে প্রতিস্থাপন করে সন্তান উৎপাদন করা ইসলামে বৈধ নয়। এক্ষেত্রে পূর্বের মত এক সন্তানের তিনজন মা, বাবা সৃষ্টি হবে। এই অবস্থায় স্ত্রীর অক্ষমতার কারণে বাবা হওয়ার জন্য ঐ পুরুষকে নতুন বিয়ে করতে হবে।

আবার কোন পুরুষের একাধিক স্ত্রী মধ্যে কোনজন জরায়ুতে সন্তান ধারণে অক্ষম হলে স্বামীর অন্য স্ত্রীর বা সতিনের গর্ভে ভ্রূণ প্রতিস্থাপন করে সন্তান উৎপাদন করাও বৈধ নয়।

পরপুরুষের শুক্রাণু দিয়ে ডিম্বাণু নিষিক্তকরণ

নিজ স্বামী ছাড়া অন্য পুরুষদের শুক্রাণু দিয়ে নিজের ডিম্বাণু টেস্টটিউবে নিষিক্তকরার পর সৃষ্ট ভ্রূণ নিজের জরায়ুতে প্রতিস্থাপন করে সন্তান জন্ম দেয়া হারাম। এক্ষেত্রে যিনা করার মত পাপ হবে। কোন মহিলার স্বামী সন্তান উৎপাদনে অক্ষম হলে স্বাভাবিকভাবে তিনি মা হতে পারবেন না। এর পরেও তিনি মা হতে চাইলে স্বামীকে তালাক দিয়ে নতুন করে স্বামী গ্রহণ করতে হবে।

হারাম টেস্ট টিউব বেবি
হারাম টেস্ট টিউব বেবি

আল্লাহ তাআলা বলেন, ﴿ وَلَا تَقۡرَبُواْ ٱلزِّنَىٰٓۖ إِنَّهُۥ كَانَ فَٰحِشَةٗ وَسَآءَ سَبِيلٗا ٣٢ ﴾ [الاسراء: ٣٢] ‘আর তোমরা ব্যভিচারের কাছে যেয়ো না, নিশ্চয় তা অশ্লীল কাজ ও মন্দ পথ’।

[সূরা আল ইসরা:৩২]

তথ্যসূত্র: জর্দানের রাজদানী ওমানে ও আই সি এর ফিকাহ একাডেমীর ১৯৮৬ সালে অনুষ্টিত অধিবেশনে গৃহিত সিদ্ধান্ত। ISESCO

টেস্ট টিউব বেবি নেওয়া কি জায়েজ?

টেস্ট টিউব বেবি নেওয়া কি জায়েজ এটা নিচের ছকে দেখুন কখন টেস্ট টিউব বেবি নেওয়া জায়েজ

শর্তবৈধতা
শুক্রাণু ও ডিম্বানু একই স্বামী এবং স্ত্রীর হতে হবে জায়েজ
ভ্রূণ নিজের স্ত্রীর জরায়ুতে স্থাপন করতে হবে জায়েজ
স্বামীর জীবদ্দশায় এই কাজ করতে হবে জায়েজ

প্রশ্ন ও উত্তর

টেস্টটিউব বেবি সম্পর্কে ইসলামের বিধান কি?

টেস্টটিউব বেবি সম্পর্কে ইসলামের বিধান হলো টেস্টটিউব বেবি জায়েজ।

আইভিএফ প্রক্রিয়ায় সন্তান জন্মদান কি হারাম?

না, হারাম নয় । উপরে বর্ণিত শর্ত মানলে আইভিএফ পদ্ধতিতে সন্তান জন্মদান হালাল।

টেস্ট টিউব বেবি ইসলামে বৈধ কী?

হ্যাঁ , টেস্ট টিউব বেবি ইসলামে বৈধ।

Is legal or Illegal Test tube Baby in Islam In Bangla

Test tube baby ki halal? Test tube baby ki haram? Islame tes tube bebir Bidhan Ki? Test tube baby Islam ki bole?

Tag: টেস্টটিউব বেবি সম্পর্কে ইসলামের দৃষ্টিভঙ্গি কি? টেস্ট টিউব বেবি সম্পর্কে ইসলামের হুকুম কি? .. টেস্টটিউব বেবী কী ইসলামী শরীয়াহ মুতাবিক জায়িজ?…টেস্টটিউব বেবি এবং ইসলাম …. টেস্ট টিউব বেবি নেওয়া কি জায়েজ? …. টেস্টটিউব বেবি সম্পর্কে ইসলামের বিধান কি?

টেস্টটিউব বেবি হারাম … টেস্টটিউব বেবি হারাম … টেস্টটিউব বেবি হারাম … টেস্টটিউব বেবি হারাম …. টেস্টটিউব বেবি হারাম ……. টেস্টটিউব বেবি হারাম টেস্টটিউব বেবি হারাম টেস্টটিউব বেবি হারাম টেস্টটিউব বেবি হারাম টেস্টটিউব বেবি হারাম টেস্টটিউব বেবি হারাম টেস্টটিউব বেবি হারাম টেস্টটিউব বেবি হারাম

Please Click on Just one Add to help us

মহাশয়, জ্ঞান বিতরণের মত মহৎ কাজে অংশ নিন।ওয়েবসাইট টি পরিচালনার খরচ হিসেবে আপনি কিছু অনুদান দিতে পারেন, স্পন্সর করতে পারেন, এড দিতে পারেন, নিজে না পারলে চ্যারিটি ফান্ডের বা দাতাদের জানাতে পারেন। অনুদান পাঠাতে পারেন এই নম্বরে ০১৭২৩১৬৫৪০৪ বিকাশ,নগদ,রকেট।এই ওয়েবসাইট আমার নিজের খরচায় চালাই। এড থেকে ডোমেইন খরচই উঠেনা। আমি একা প্রচুর সময় দেই। শিক্ষক হিসেবে আমার জ্ঞান দানের ইচ্ছা থেকেই এই প্রচেষ্টা।

DMCA.com Protection Status