আনারস ও দুধ একসাথে খেলে কি মৃত্যু হয়?

Table Of Contents

আনারস ও দুধ একসাথে খেলে কি মৃত্যু হয়? শুধু বাংলাদেশ নয় বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই একটি প্রচলিত কুসংস্কার হলো “আনারস ও দুধ একসাথে খেলে বিষক্রিয়ায় মানুষ মারা যায়।” বাংলাদেশের গ্রাম অঞ্চলে প্রবিণ গুরুজন এই ধারণা আমাদের মাথায় এমনভাবে স্হায়ী করে দিয়েছেন যে, অনেক লেখাপড়া জানা মানুষও এটা বিশ্বাস করে।

আনারস ও দুধ একসাথে খেলে কি মৃত্যু হয়?আপনি যতই বুঝান না কেনো তারা মানতেই চাইবে না যে ধারণাটি একদম ভুল। আমার বিশ্বাস বাংলাদেশে একজন মানুষকেও খুঁজে পাওয়া যাবেনা যারা এই কুসংস্কার সম্পর্কে জানে না। আপনার কি বিশ্বাস, আনারস ও দুধ একসাথে খেলে কি মৃত্যু হয়? আসুন আমার সাথে, দেখি বিজ্ঞানের চোখে আসল সত্যটি কি?

দুধ

দুধ হলো ৬.৮ Ph বিশিষ্ট হালকা এসিডিক ধরনের খাবার। দুধের প্রধান উপাদান হলো ল্যাকটোজ, কেসিন,ফসফোলিপিড, ক্যালসিয়াম,সকল প্রকার ভিটামিন। দুধে পানি থাকে প্রায় ৮৮%।
দুধের শর্করা কে বলে ল্যাকটোজ। অনেক মানুষের ল্যাকটোজ হজম করার ক্ষমতা নেই। এদের ল্যাকটোজ এ এলার্জি আছে।এই লোকগুলো দুধ খেলে এমনিতেই বদহজম হয়।আরও পড়ুন-কারেন্ট-ইলেকট্রিক-বৈদ্যুতিক শক এর প্রাথমিক চিকিৎসা, পাখিদের কারেন্ট শক করে না কেনো?
দুধের প্রোটিনকে বলে কেসিন।কেসিন অণু তরল পনিতে অতিক্ষুদ্র দানার মত অবস্থায় থাকে।কেসিন অণু দুধে ঋণাত্মক আয়ন হিসেবে থাকে।আমরা জানি সমধর্মী চার্জ পরস্পরকে বিকর্ষণ করে।একারণে কেসিন অণু পরস্পরের কাছ থেকে দূরে থাকে,তাই দুধ তরল থাকে।এই কেসিন অণুর কারণে দুধ সাদা দেখায়।

দুধ ফেটে যায় কেন?

দুধে টক জাতীয় ফলের রস দিলে দুধের অম্লতা বৃদ্ধি পায়। এর ফলে কেসিন অণুগুলো ঋণাত্মক চার্জ হারিয়ে ফেলে এবং পরস্পরের প্রতি আকর্ষণ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। এবার আকর্ষণ ক্ষমতা বৃদ্ধির ফলে কেসিন অণু জমাট বাধে।
ল্যাকটোজ,পানি,চর্বি আলাদা হয়ে যায়।এই অবস্থাকে আমরা বলি দুধ ফেটে যাওয়া বা কেটে যাওয়া(লটে যাওয়া)।(আনারস ও দুধ একসাথে খেলে কি মৃত্যু হয়?)আরও পড়ুন-সতীত্ব বা কুমারীত্ব কি?

আনারসঃ

আনারস হলো একটি এসিডিক ফল অর্থাৎ টক ফল। আনারসে অনেক পুষ্টি উপাদানের সাথে এসিড এবং ইথাইল বিউটানয়েট নামক এস্টার থাকে। আনারস এ বিশেষ ধরণের এনজাইম থাকে একে বলে ব্রোমেলিন।

আনারস ও দুধ একসাথে খেলে কি মৃত্যু হয়?

আনারস ও দুধ একসাথে খেলে, আনারসের এসিড দুধের অম্লত্ব বৃদ্ধি করে।এর ফলে কেসিন অণুগুলো ঋণাত্মক চার্জ হারিয়ে ফেলে এবং পরস্পরের প্রতি আকর্ষণ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। এবার আকর্ষণ ক্ষমতা বৃদ্ধির ফলে কেসিন অণু জমাট বাধে এবং দুধ ফেটে যায় বা কেটে যায় দুধের ল্যাকটোজ স্বাভাবিক অবস্থায় হজম হয়ে গ্যালাকটোজ এ পরিণত হয়, এতে সবাই দুধ হজম করতে পারে।
ফেটে যাওয়া দুধের ল্যাকটোজ হজম হওয়ার আগেই মুক্ত হয়ে যায়।যাদের দুধের ল্যাকটোজ খেলে এলার্জি হয় তারা ফেটে যাওয়া দুধ খেলে, পেটে সুরসুরি জাতীয় অনুভূতি হয় এবং বমিবমি ভাব সৃষ্টি হয়।হজম করতে পারেনা বলে পাতলা পায়খানা হয়। তাই বলে ‘আনারস ও দুধ’ একসাথে খেলে মৃত্যু হবে না।

আনারস ও দুধ একসাথে খেলে কি মৃত্যু হয়?
পাকস্থলী
আবার আনারসের এস্টার দুধের কেসিন এর সাথে বিক্রিয়া করে একটি জটিল যৌগ সৃষ্টি করে এটা আলসার বা গ্যাসট্রাইটিস রোগির জন্যে সামান্য বিষাক্ত। সুস্থ মানুষের জন্যে নয়। তবে ঐসব রোগী খেয়ে থাকলে মারা যাবে না সর্বোচ্চ পেটব্যথা, বুকজ্বলা, বমি ইত্যাদি সমস্যা হতে পারে।
আনারস এ ব্রোমেলিন নামক এনজাইম থাকে এই এনজাইম এমনিতেই পাকস্থলিতে উত্তেজনা সৃষ্টি করে। ফলে অনেকে আনারস সহ্য করতে পারে না খাওয়ামাত্র বমি করে বা পেট ব্যাথায় কাতরায়।দুধের কেসিন আনারসের ব্রোমেলিন এর সাথে বিক্রিয়া করে এক ধরনের এলকোহল তৈরি করে যা পাকস্থলিতে মারাত্মক আলোড়ন সৃষ্টি করে ফলে বমি হয়। তবে মৃত্যু হওয়ার সম্ভাবনা নেই।

দুধ খাওয়ার কতক্ষণ পর আনারস খাওয়া উচিৎ?

পুষ্টি বিশেষজ্ঞ গণ পরামর্শ দেন যে দুধ খাওয়ার পর অন্ততপক্ষে ২ ঘন্টা অপেক্ষা করে আনারস খেলে কোন প্রকার সমস্যাই হবে না।

আনারস ও দুধের মিশ্রিত খাবারঃ

পৃথিবীর অনেক দেশেই আনারস ও দুধের মিশ্রিত খাবার প্রচলিত আছে।যেমন- আনারস ও দুধের মিশ্রিত জুস,আনারস ও দুধের ছানার(ইয়োগার্ট) মিশ্রিত স্মুদি, Milk and pineapple cake,Milk and pineapple shake ইত্যাদি।

আনারস ও দুধের মিশ্রিত খাবার
আনারস ও দুধের মিশ্রিত খাবার

আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের মুম্বাই এর একটি জনপ্রিয় স্ট্রিট ফুড হলো আলারস ও দুধের
মিল্ক শেক। কি বুঝলেন ভাই সব? সঠিক পরিমাণে আনারস ও দুধ মিশ্রিত করলে কোন বিপদের সম্ভাবনা নেই।

Anaros o dudh aksathe khele ki mittu hoy?

pineapple o milk aksathe khele ki mittu hoy?anaros o dudh aksathe khele ki mittu hoy?dudh o anaros

সারমর্মঃ

অল্প দুই এক টুকরো আনারস একগ্লাস দুধের সাথে খেলে কিছুই হবে না। বেশী খেলে সর্বোচ্চ মারাত্মক
পেটব্যথা, বুকজ্বলা, বমি হতে পারে। তাইবলে মৃত্যু হবে না। তাহলে তো বলা যায় আনারস ও দুধ একসাথে খেলে কি মৃত্যু হয়? এই কথার ভিত্তি নেই।

বি:দ্রঃ বিষয়টি আমি নিজে পরীক্ষা করেছি।সব মানুষের শরীরের সক্ষমতা এক নয়।তাই বাজী ধরে বেশি মাত্রায় আনারস ও দুধ একসাথে খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। আপনার শারীরিক সমস্যার জন্যে কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।
তথ্যসূত্র(reference):বিভিন্ন বিদেশী তথ্য অনুবাদ করে লেখা। (Food taboo of taking pineapple and milk at a time)

pacemaker santo

https://kotokisuojana.com

লেখাটি ভালো লাগলে আপনার প্রিয়জনের সাথে শেয়ার করুণ।জ্ঞান বিতরণে সাহায্য করুন। আপনি ভালো লিখতে পারলে এই ওয়েবসাইট এ লেখা পাঠান।লেখা মনোনীত হলে পুরস্কার পাবেন। আপনার মাথায় উদ্ভট কোন প্রশ্ন ঘুরছে কিন্তু উত্তর পাচ্ছেন না। তাহলে দেরি না করে এই পোস্টের নিচে কমেন্ট বক্সে প্রশ্ন টি লিখুন।উত্তর পাবেন নিশ্চিত।

ধন্যবাদ

86 / 100

3 thoughts on “আনারস ও দুধ একসাথে খেলে কি মৃত্যু হয়?”

Leave a Comment