গান্ধি পোকার গন্ধ রহস্য! গান্ধি পোকার গন্ধ ছড়ায় কেন?

গান্ধি পোকার গন্ধ রহস্য!

গান্ধি পোকার গন্ধ রহস্য! …. মহাত্মা গান্ধীর নাম শোনেনি এমন লোকের সংখ্যা ভারতবর্ষে খুব কমই আছে।

কিন্তু গান্ধীজির নামের সাথে একটি বিখ্যাত পোকার নাম জরিয়ে আছে এই তথ্য খুব কম লোকই জানে।

জি হ্যাঁ, ঠিক ধরেছেন! এবার সেই বিখ্যাত পোকার নাম বলছি, পোকাটির নাম “গান্ধি পোকা”(গান্ধী পোকা)।

গ্রামে কুপির টিমটিমে আলোতে উঠানে ভাত খেতে বসে পরম তৃপ্তি করে খেয়ে চলেছেন হঠাৎ পাতে বিশ্রী গন্ধের উপস্থিতিতে বমি করার মত অবস্থা, আপনার এই বিব্রতকর অবস্থার জন্যে দায়ী সেই বেরসিক মিস্টার গান্ধি পোকা।(গান্ধি পোকার গন্ধ)

আপনার মাথায় এখন এই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে এই বেয়াদব গান্ধি পোকা তার শরীরে এরকম বিশ্রী, বদ গন্ধ কোথায় পেল?

এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে হলে চলুন ঘুরে আসি গান্ধি পোকার বাসা থেকে এবং জেনে নেই গান্ধি পোকার গন্ধ রহস্য।

গান্ধি পোকার গন্ধ রহস্য!
গান্ধি পোকার গন্ধ রহস্য!

আপনি আরো পড়তে পারেন….. জোনাকি পোকার লেজে আলো জ্বলে কেন?

চুলকাতে মজা লাগে কেন?

গান্ধি পোকার(gandhi poka)পরিচিতি

প্রাণিজগতের একটি পর্ব হলো Arthropoda(আর্থ্রোপোডা)। আর্থ্রোপোডা পর্বের প্রাণিরা কীটপতঙ্গ নামে পরিচিত।এই পর্বের একটি বর্গের নাম হেমিপটেরা।

হেমিপটেরা (Hemiptera) বর্গের প্রায় ৫০,০০০-৮০,০০০ প্রজাতি বিদ্যমান।হেমিপটেরা বর্গের কীটপতঙ্গ সাধাণত বাগ (bug) বা গান্ধিপোকা, গাছের উকুন,আইশ পোকা প্রভৃতি নামে পরিচিত।

হেমিপটেরা বর্গের অন্তর্গত কয়েকটি গণ বিশেষভাবে গান্ধি পোকা নামে পরিচিত যেমন-Helopeltis,Leptocorisa,Oebalus Helopeltis গণের গান্ধি পোকাদের চা গাছের গান্ধি পোকা আর Leptocorisa,Oebalus গণের গান্ধি পোকাকে ধানের গান্ধি পোকা বলে।(গান্ধি পোকার গন্ধ)

তবে এরা শুধু ধান নয় প্রায় ৮০টি ফসলের ক্ষতিকর পোকা নামে পরিচিত। গান্ধি পোকার প্রজাতি সংখ্যা কয়েকশ।

অধিকাংশ প্রজাতির দেহ শক্ত বর্মের মত আবরণে আবৃত থাকে।এদের আকৃতি লম্বা অথবা আয়তকার। স্বচ্ছ ডানা এবং মুখে মশা-মাছির মতো শুঙ্গ থাকে।

কিছু কিছু প্রজাতির মুখে লম্বা সুইয়ের মতো ধারালো দাঁত থাকে। শুঙ্গের সাহায্যে গাছ ও পাতার রস শোষণ করে খায়।

তবে কিছু প্রজাতি বড় প্রাণীর রক্ত খায়। যেমন—ছারপোকা। ছারপোকা গান্ধি পোকা হলেও অন্য প্রজাতির গান্ধি পোকার মতো এর ডানা থাকে না।

গান্ধি পোকার শরীরের রং বিভিন্ন ধরণের যেমন- সবুজ,বাদামি,হলদে,মেটে ইত্যাদি।বাচ্চা সমূহ সবুজ থেকে বাদামী এবং পূর্ণবয়স্ক পোকা বাদামী থেকে হলদে সবুজ বর্ণের হয়।

জীবনকাল ৬০-৯০ দিনের হয়। জীবনচক্রের স্তর ৪ টি- ডিম ৩-৬ দিন, নিম্ফ ১৫-৩০ দিন, পূর্ণবয়স্ক ৩০-৫০ দিন এবং বছরে ৫ টি জেনারেশন দিতে পারে। স্ত্রী পোকা পাতার উপর ২৪-৩০ টি গোলাকার খয়েরী রঙ এর ডিম সারি করে পাড়ে।

গান্ধি পোকার(gandhi poka)শ্রেণিবিন্যাস

KingdomAnimalia
PhylumArthropoda
ClassInsecta
OrderHemiptera
FamilyPentatomidae,Alydidae
GenusOebalus,Helopeltis,Leptocorisa
SpeciesO. pugnax
গান্ধি পোকার শ্রেণিবিন্যাস

গান্ধি পোকার(gandhi poka)বৈজ্ঞানিক নাম

Oebalus pugnax(ঘাস জাতীয় উদ্ভিদের গান্ধি পোকা) দূরপ্রাচ্য, আমেরিকা ও ইউরোপ মহাদেশে পওয়া যায়।
Helopeltis collaris(চা পাতার গান্ধি পোকা)
Leptocorisa oratoria/bengalensis/ acuta(ধানের গান্ধি পোকা) ভারতীয় উপমহাদেশ,দক্ষিণ আমেরিকাতে বেশি পাওয়া যায়।

ধানের গান্ধি পোকা
ধানের গান্ধি পোকা
চা পাতার গান্ধি(gandhi poka) পোকা
চা পাতার গান্ধি(gandhi poka) পোকা

গান্ধি পোকার(gandhi poka)নামকরণের কারণ

গান্ধি পোকার দেহে দুর্গন্ধযুক্ত, তেলের মতো এক ধরনের রস জমা থাকে।ভয় পেলে বা বিরক্ত হলে এরা দুর্গন্ধযুক্ত রস নিঃসরন করতে থাকে ফলে এই রসটির দুর্গন্ধ বাতাসে ছড়িয়ে পরে।

এই কুখ্যাত দুর্গন্ধের কারণে বিখ্যাত পোকাটির নামকরণ করা হয়েছে গান্ধি পোকা।(গান্ধি পোকার গন্ধ)

গান্ধি পোকার ইংরেজি নাম stink bug বা দুর্গন্ধময় পোকা।আহ্ কি বুদ্ধি ইংরেজদের যেমন কর্ম তেমন নাম রেখেছে।

গান্ধি পোকার গন্ধ রহস্য

গান্ধী পোকার বক্ষ অঞ্চলের তলদেশে একটি বিশেষ গ্রন্থি আছে এই গ্রন্থিই হলো গান্ধি পোকার গন্ধ র জন্য দায়ী।

গ্রন্থিটিতে গন্ধযুক্ত তরল পদার্থ সঞ্চিত থাকে।এই গ্রন্থির সাথে কতগুলো নল যুক্ত থাকে।

নলগুলো আবার সামনের একজোড়া পায়ে প্রবেশ করে এবং ছিদ্রের মাধ্যমে মুক্ত হয়।ছিদ্রটি পোকা ইচ্ছামত খুলতে এবং বন্ধ করতে পারে।

গান্ধী পোকা রাগান্বিত হলে বা ভয় পেলে গন্ধ গ্রন্থি থেকে দুর্গন্ধযুক্ত রস নল দিয়ে পায়ে চলে আসে এবং বহিঃপরিবেশে উন্মুক্ত হয়।

ব্যাপন প্রক্রিয়ায় গন্ধ বাতাসে ছড়িয়ে পরে এবং আমাদের নাকে পৌছায়।এটাই গান্ধি পোকার গন্ধ রহস্য।

গান্ধি পোকার গন্ধ হয় কেন?

এখন প্রশ্ন হলো ঐ দুর্গন্ধযুক্ত তরলের মধ্যে কি এমন রাসায়নিক উপাদান আছে যার জন্যে গান্ধি পোকার গন্ধ সৃষ্টি হয়?

দুর্গন্ধযুক্ত তরলটি অ্যালডিহাইড ধরনের জৈবযৌগ। এর রাসায়নিক নাম trans-2-decenal and trans-2-octenal.

 trans-2-decenal and trans-2-octenal
trans-2-decenal and trans-2-octenal

এই রাসায়নিক পদার্থের গন্ধ কিছুটা কড়া ধনে পাতার গন্ধের মত।

এই রাসায়নিক যৌগটি উচ্চ ঘনত্বে সঞ্চিত থাকে ফলে দেহের বাইরে বের হলে অনেক্ষণ বাতাসে গন্ধ ছড়াতে থাকে।

গন্ধ আমাদের ত্বকে লাগলে সাবান দিয়ে না ধোয়া পর্যন্ত দূর হয় না।তাই গান্ধি পোকা দেখলে তাকে না ঘাটানোই ভাল।

কে জানে, কখন সে বিপদ মনে করে গ্যাস ছেড়ে দেয়।

গান্ধি পোকার গন্ধ এক ধরণের ফেরোমন। আপনি জানলে অবাক হবেন যে পৃথিবীর সব প্রজাতির গান্ধি পোকার গায়ের গন্ধ এক নয়। ভিন্ন প্রজাতির পোকাকে শুধু গন্ধ দেখেই আলাদা করা যায়।

গান্ধি পোকার গন্ধ ছড়ায় কেন?

পৃথিবীর সব প্রাণী বিপদে পরলে নিজেকে শত্রুর হাত থেকে রক্ষার জন্য ভিন্ন ভিন্ন কৌশল প্রয়োগ করে।

যেমন- সাপকে মারতে গেলে ফনা তুলে ফোঁসফোঁস করে,ভোঁদড় গন্ধ ছুড়ে দেয় শত্রুকে দূরে রাখার জন্য,অক্টোপাস কালি ছুড়ে দেয় শত্রুকে ফাঁকি দেয়ার জন্য।

ঠিক একী ভাবে গান্ধি পোকা যখন নিজেকে বিপদ আছে বলে মনে করে তখন এই গন্ধ ছাড়ে।

টিক‌টিকি ব্যাঙ বা পাখীরা যখন এই পোকাদের ধরতে যায়, তখন গান্ধি পোকা ঐ দুর্গন্ধ ছুড়ে দেয় তখন এদের বিশ্রী গন্ধ পেয়ে কোনো প্রাণীই তাদের কাছে আসে না।

শত্রু গন্ধ শুঁকে বিরক্ত হয়ে চলে যায়।এটি এক ধরনের আত্মরক্ষার উপায়। আবার প্রজননকালে স্ত্রী পোকাকে আকৃষ্ট করার জন্য পুরুষ গান্ধি পোকার গন্ধ ছড়ায়।

প্রশ্ন এবং উত্তর

গান্ধি পোকা গায়ে বা শরীরে পরলে কি হয়?

গান্ধি পোকা গায়ে বা শরীরে পরলে পোকা গায়ের ত্বকের উপর দুর্গন্ধযুক্ত তরল নিঃস্বরণ করে ফলে শরীর থেকে দুর্গন্ধ বের হতে থাকে

এই গন্ধ সময়ের সাথে সাথে বাতাসে ব্যাপিত হয়ে মিশে যায়। তবে কিছু ক্ষেত্রে সাবান দিয়ে না ধোয়া পর্যন্ত গান্ধি পোকার গন্ধ দূর হয় না।

গান্ধি পোকা শরীরে পরলে মানুষের তেমন কোন ক্ষতি হয় না।তবে যাদের পোকা মাকড়ে এলার্জি আছে তাদের ত্বকে ফুসকুড়ি উঠতে পারে অথবা প্রচুর চুলকাতে পারে

গান্ধি পোকার কামড়ে করনীয় কি?

গান্ধি পোকা কামড় দিলে কি করবেন?

গান্ধি পোকা সচারাচর কামড় দেয় না।তবে কামর দিলে এই কাজ গুলো করলে উপকার পাবেন…

  • বেইকিং সোডা ও অ্যাপল সাইডার ভিনিগার একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে কামড়ের জায়গায় লাগিয়ে রাখলে আরাম পাওয়া যাবে।
  • আক্রান্ত স্থানে এক মুঠো কাদা লেপে দিতে পারেন, এতে ফোলাভাব কমে আসবে।
  • বরফ ডলে নিলেও জ্বলুনি ও ফোলাভাব কমবে
  • পোকার কামড় দমনে অ্যালোভেরার জেল খুবই কার্যকর।কামড়ের স্থানে খানিকটা টাটকা অ্যালোভেরা জেল লাগিয়ে নিলেই আরাম পাওয়া যাবে।

গান্ধির পাদ,গান্ধীর পাদ কি?

গান্ধীপোকা গায়ে বা শরীরে পরার পর পটাস শব্দে দুর্গন্ধযুক্ত তরল ত্বকের উপর বের করে দেয় এই ঘটনাকে অনেক অঞ্চলে গান্ধীর পাদ বলে।

গান্ধী পোকা english name/গান্ধি পোকা in English

গান্ধি পোকার ইংরেজি নাম কি? আঞ্চলিকভাবে গান্ধি পোকা ভারতীয় উপমহাদেশে Gandhi bug বা Gandhi insects নামে পরিচিত।
কৃষিক্ষেত্রে Riche bug নামে পরিচিত।গান্ধি পোকার ইংরেজি নাম stink bug বা দুর্গন্ধময় পোকা।
আহ্ কি বুদ্ধি ইংরেজদের যেমন কর্ম তেমন নাম রেখেছে।

আরাটি পোকা কি?

গান্ধি পোকা অনেক গ্রামে আরাটি পোকা নামে পরিচিত।

gandhi pokar gondho rohosso

gandgi bug,gandhi pokar gondher karon ki? gandhi insect, the cause of gandhi insects bad smell, gandhi poka sorole porle ki korben? gandhir pad ki? rice gundhi bug, rice gundhi poka,gundhi poka gondho soray keno?

By …. Pacemaker santo

https://kotokisuojana.com

লেখাটি ভালো লাগলে আপনার প্রিয়জনের সাথে শেয়ার করুণ।জ্ঞান বিতরণে সাহায্য করুন। আপনি ভালো লিখতে পারলে এই ওয়েবসাইট এ লেখা পাঠান।লেখা মনোনীত হলে পুরস্কার পাবেন।

আপনার মাথায় উদ্ভট কোন প্রশ্ন ঘুরছে কিন্তু উত্তর পাচ্ছেন না। তাহলে দেরি না করে এই পোস্টের নিচে কমেন্ট বক্সে প্রশ্ন টি লিখুন।উত্তর পাবেন নিশ্চিত।

All photo credit Goes to sutterstock.com

92 / 100

1 thought on “গান্ধি পোকার গন্ধ রহস্য! গান্ধি পোকার গন্ধ ছড়ায় কেন?”

Leave a Comment