মাগি শব্দের অর্থ কী?মাগি শব্দের উৎপত্তি#

মাগি শব্দের অর্থ কী?মাগি শব্দের উৎপত্তি#

গ্রামের মহিরারা যখন ঝগড়া করে তখন একজন অপরজনকে আরামছে মাগি বলে গালি দেয়। ঝগড়ার সময় মাগি শব্দের ব্যবহার খুব সাবলীল ও আরামদায়ক। কাউকে মাগি বলে সম্বোধন করলে মনের মধ্যে একটা প্রশান্তি কাজ করে এটা অন্য গালির ক্ষেত্রে এতটা আরাম দেয় না। বস্তিবাসী হরহামেশাই একে অপরকে মাগি বলে থাকে।

শধু বস্তি কেন ভদ্রলোকের ঘরেও প্রচণ্ড রাগের মাথায় মাগি শব্দের ব্যবহার চোখে পরে। তবে সব ক্ষেত্রেই মাগি শব্দটি গালি হিসেবে ব্যবহার হয় না। বুড়ি মহিলাদের অনেকে বুড়ি মাগি বলে ডাকেন।

শব্দটির ব্যবহার যত্রতত্র চোখে পরলেও বেশিরভাগ মানুষ এটার প্রকৃত অর্থ জানে না। আজ জেনেনিই এই বহুল ব্যবহৃত জনপ্রিয় শব্দটির প্রকৃত অর্থ।

মাগি শব্দের অর্থ

আরো পড়ুন ……… ডাকসাইটে অর্থ কী? ……. বন্দে মাতরম অর্থ কী? …… বরোভাতারি মানে কি? …. পিরিয়ড বা মাসিক কী? মিনস্ কী? ঋতুস্রাব কেন হয়?

মাগি শব্দের উৎপত্তি

সংস্কৃত শব্দ মাতৃগ্রাম>মাউগ্গাম(প্রাকৃত)>মাউগ>মাগু>মাগ>মাগী শব্দের উদ্ভব হয়েছে।

তথ্যসূত্র: জ্ঞানেন্দ্রমোহন দাশ (১৮৭২-১৯৩৯) সাহিত্যিক ও অভিধান প্রণেতা।
* রালফ লিলি টার্নার, ইন্দো-আর্য ভাষার তুলনামূলক অভিধান

মাগ+ই=মাগি, মাগ>মাউগ বা মাগু>মাগী
মৈথিলি ভাষায়- মৌগী বা মাগু হলো মাগী এর প্রতিশব্দ।

তথ্যসূত্র: হরিচরণ বন্দোপাধ্যায়,(১৮৬৭-১৯৫৭) শিক্ষাবিদ, পন্ডিত, অভিধান-প্রণেতা।

মাগী শব্দটি এসেছে মার্গিতা থেকে, যার অর্থ মাগিবার জিনিস।

-সুকুমার সেন
বিভিন্ন উৎস আনুসারে মাগি শব্দের উৎপত্তিঅর্থ

সংস্কৃত শব্দ মাতৃগ্রাম

নারী

মৈথিলি ভাষায় মৌগী বা মাগু

নারী
বাংলা মার্গিতাযা চাওয়া হয় এমন জিনিষ

মাগি শব্দের অর্থ

মাগি একটি স্ত্রীবাচক শব্দ যার অর্থ- নারী, মহিলা, মেয়েলোক,স্ত্রী, বউ ইত্যাদি।আবার মাগী মানে কোন কিছু চাওয়া বা প্রার্থনা করা। তবে আধুনিক সমাজে মাগি বলতে দুশ্চরিত্রা রমণী, বেশ্যা,গণিকা বা পতিতা বুঝানো হয়।

মাগ থেকে মাগি শব্দের প্রচলন হলেও এর অর্থ কিন্তু ভালোই বুঝায়। মাগ মানে বৌ বা স্ত্রী। যেমন – “প্রেম জমেছে মাগ ভাতারে” গানের কলিতে মাগ মানে স্ত্রী।

মাগি শব্দের বানান

মাগি শব্দটি তদ্ভব তাই মাগ+ঈ না হয়ে মাগ+ই হবে, মানে মাগি বানান সঠিক, মাগী বানান ভুল।

তথ্যসূত্র: চলন্তিকা,রাজশেখর বসু

গুগল ডিকশনারিতে এখনো মাগী বানান প্রচলিত আছে।

মাগি শব্দের ব্যবহার

১৯৭৫ সালের আগে মুক্তি প্রাপ্ত অনেক সিনেমাতে মাগি শব্দটি স্ত্রীদের আদর করে ডাকার ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হতো। কিন্তু বর্তমানে মেয়েদের গালি দেয়ার জন্য ভিলেন মাগি শব্দ ব্যবহার করে। যুগের পরিবর্তনে ভাষার পরিবর্তনের একটি উৎকৃষ্ট উদাহরণ মাগি শব্দ।

বিংশ শতাব্দির সময়গুলোতে গ্রামের কৃষক মাঠের কাজ শেষ করে বাড়ির উঠানে এসে বউ কে আদর করে ডাক দিতো আমার মাগি কুনটি গেলো রে….মাগি সম্বোধন তখন ছিলো অত্যন্ত আদরের।

বর্তমানে আপনি বৌকে এমন হাকডাক করলে কেল্লাফতে। ইজ্জতের বারোটা বেজে যাবে। প্রতিবেশী মনে করবে নিশ্চিত আপনি বউয়ের সাথে ঝগড়া করছেন নাহয় বাড়িতে পতিতা এনেছেন ইন্দ্রিয়সুখ লাভের জন্য। তাই সাবধান এমন শব্দ খুব চুপিসারে ঘুমানোর খাটে ব্যবহার করুন।

এখনো কিছু কিছু অঞ্চলে মাগি বলতে নারী, মহিলা বা স্ত্রী লিঙ্গদের বোঝানো হয়।কিন্তু আমজনতা বর্তমানে মাগি বলতে পতিতা বুঝে থাকেন।

মাগি শব্দের উৎপত্তি

বাংলা সাহিত্যের মধ্যযুগ ও আধুনিক যুগের শুরুতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর,বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় সহ অনেক ডাকসাইটে লেখক মাগি শব্দটি সাবলীলভাবে নিজেদের সাহিত্যকর্মে ব্যবহার করে শব্দটিকে ধন্য করেছেন।

রবীন্দ্রনাথ লিখেছেন:

“তোমার কাছে এ বর মাগি/ মরণ হতে যেন জাগি/ গানের সুরে।
যেমনি নয়ন মেলি, যেন/ মাতার স্তন্যসুধা-হেন/ নবীন জীবন দেয় না পূরে।”

কবি আবদুল কাদির (১৯০৬-১৯৮৪ খ্রি. ) জয়যাত্রা কবিতায় লিখেছেন

“তোমার উত্থান মাগি ভবিষ্যৎ রয়ে প্রতীক্ষায়,
রুদ্ধ বাতায়ন পাশে শঙ্কিত আলোক শিহরায়।”

রবীন্দ্রনাথ আর কবি আবদুল কাদিরের মাগি যৌনকর্মী অর্থদ্যোতক মাগি নয়। এই মাগি অর্থ চাই, প্রার্থনা করি।

যুগের পরিবর্তনে ভালো মাগি পরিবর্তন হয়ে খারাপ মাগিতে পরিণত হয়েছে….. আহ্ আরো কি জানি হয় কলি কালে!

গালিতে মাগি শব্দের ব্যবহার বিভিন্ন স্ত্রীবাচক গালিকে আরো শক্তিশালী ও মুখরোচক করতে অনুসর্গ হিসেবে মাগি শব্দ ব্যবহার করা হয়।

যেমন- শুধু খানকি বললে গালিটি তেমন একটা শ্রুতিমধুর বা দৃঢ় হয় না আবার অনেকের গায়ে লাগে না। কিন্তু খানকি+মাগি=খানকিমাগি বলার সাথেসাথে গালি শ্রবণকারী তেলেবেগুনে জ্বলে উঠে। পাল্টা গালি দিয়ে আপনার চৌদ্দ গুষ্টি উদ্ধারে লেগে পরে।

আজ এ পর্যন্তই, ভালো থাকুন। দেখেশুনে, জেনেবুঝে, চোখ কান খোলা রেখে মাগি শব্দটি ব্যবহার করুন। নিজে বাঁচুন অন্যের সম্মান বাঁচান।

Tag: মাগি শব্দের অর্থ মাগি শব্দের অর্থ মাগি শব্দের অর্থ মাগি শব্দের অর্থ মাগি শব্দের অর্থ

Please Click on Just one Add to help us

মহাশয়, জ্ঞান বিতরণের মত মহৎ কাজে অংশ নিন।ওয়েবসাইট টি পরিচালনার খরচ হিসেবে আপনি কিছু অনুদান দিতে পারেন, স্পন্সর করতে পারেন, এড দিতে পারেন, নিজে না পারলে চ্যারিটি ফান্ডের বা দাতাদের জানাতে পারেন। অনুদান পাঠাতে পারেন এই নম্বরে ০১৭২৩১৬৫৪০৪ বিকাশ,নগদ,রকেট।এই ওয়েবসাইট আমার নিজের খরচায় চালাই। এড থেকে ডোমেইন খরচই উঠেনা। আমি একা প্রচুর সময় দেই। শিক্ষক হিসেবে আমার জ্ঞান দানের ইচ্ছা থেকেই এই প্রচেষ্টা।